আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
অর্থনীতি

অবরোধে জমছেনা বাণিজ্যমেলা

DFT 8.1.15ওমেনআই:রাজনৈতিক অস্থিরতা এবারের ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্যমেলা ফ্লপ করার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। গত কয়েক দিনের মতো বুধবার মেলার সপ্তম দিনে মেলায় দর্শনার্থীদের আনাগোনা তেমন ছিল না। আশানুরূপ দর্শনার্থী না থাকায় হতাশ ব্যবসায়ীরাও।

৫ জানুয়ারি দুই দলের পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি ঘোষণা এবং কর্মসূচি পালন করতে না পারায় বিএনপির টানা অবরোধের ডাক বাণিজ্যমেলায় দর্শনার্থী সংখ্যা কমিয়ে দিয়েছে ব্যাপকভাবে।

মূলত গত রোববার থেকেই উত্তপ্ত রাজধানী। ফলে বাণিজ্যমেলায় অংশগ্রহণকারী ব্যবসায়ীরা পড়েছেন বিপাকে।

বুধবার মেলা ঘুরে দেখা গেছে, মেলায় দর্শনার্থীর ভিড় নেই। স্টলগুলোতে দু’একজন দর্শক ও ক্রেতা দেখা গেছে।

হোমটেক্স স্টলের বিক্রেতা হোসেন বলেন, ‘অবরোধের কারণে মেলায় দর্শনার্থী নেই। রাজনীতিবিদরা রাজনীতি করেন তাদের জন্যই। জনগণের কথা তারা ভাবেন না। রাজনৈতিক দলগুলোর প্রতি আমার আহ্বান অন্তত বাণিজ্যমেলা চলাকালীন তাদের কর্মসূচি দেয়া থেকে বিরত থাকেন।’

বেঙ্গল প্লাস্টিক প্যাভিলিয়নের দায়িত্বরত কর্মকর্তা সানজিদ ইব্রাহিম বলেন, ‘গত কয়েক দিন বিক্রি ছিল কম। আজকে একটু গতকালকের থেকে দর্শনার্থীর আগমন বেশি। তবে আশানুরূপ নয়। এভাবে চলতে থাকলে বিক্রির লক্ষ্যমাত্রা পূরণতো দূরের কথা, মেলায় অংশগ্রহণ করতে যে খরচ হয়েছে তা ওঠানো যাবে না।’

মেলার ৩৬নং প্যাভিলিয়নে রয়েছে আরএফএলের দুরন্ত সাইকেলের স্টল। মেলার তিন চার দিন আমাদের প্যাভিলিয়নজুড়ে ছিল দর্শনার্থীদের ব্যাপক ভিড় আজকে দেখা গেল হাতেগোনা কয়েকজনকে।

স্টলের ইনচার্জ কামাল হোসেন বলেন, ‘সরকার-বিরোধী জোটের মুখোমুখি অবস্থানের কারণে মেলা অনেকটাই ক্রেতাশূন্য। এভাবে চলতে থাকলে আমরা আমাদের লক্ষ্য অর্জন করতে পারব না।’

এলজি-বাটারফ্লাই মার্কেটিং ম্যানেজার(প্রডাক্ট) এএসএম মুনতাসির চৌধুরী বলেন, ‘দেশের রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে প্রথম কয়েকদিন মেলায় আমাদের প্যাভিলিয়নে ভালো সাড়া ছিল কিন্তু ৪ তারিখের পর থেকে তবে ক্রেতাদের কাঙ্ক্ষিত সাড়া এখনো পাওয়া যায়নি।

উল্লেখ, ১ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০তম এই মেলার উদ্বোধন করেন। মাসব্যাপী এই মেলা চলবে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত। বাণিজ্য মন্ত্রণালয় ও বাংলাদেশ রপ্তানি ব্যুরো উন্নয়ন বোর্ড (ইপিবি) আয়োজন করে এই মেলার।

রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর তথ্য অনুযায়ী, ২০১৫ সালের এ বাণিজ্য মেলায় বাংলাদেশ, অস্ট্রেলিয়া, ব্রিটেন, জার্মানিসহ মোট ১৫টি দেশ অংশ নিয়েছে। মোট ৫০০টি স্টলের মধ্যে মেলায় বিদেশি প্রতিষ্ঠানের জন্য মোট ৪৮টি প্যাভেলিয়ন বরাদ্দ রাখা হয়েছে।

ঢাকা, ০৮ জানুয়ারি (ওমেনআই)/এসএল/

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close