আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
আন্তর্জাতিক

ফের শার্লি এবদোর সংখ্যা নিয়ে বিতর্ক

charli wmnওমেনআই:ফ্রান্সের ব্যাঙ্গাত্মক সাপ্তাহিকী শার্লি এবদোর নতুন সংখ্যা বাজারে এসেছে। পত্রিকাটির প্যারিস কার্যাকলয়ে সন্ত্রাসী হামলার এক সপ্তাহ পর বুধবার এই সংখ্যা প্রকাশিত হল। ওই হামলায় আট সাংবাদিকসহ ১২ জন নিহত হয়েছিলেন।

এদিকে নতুন সংখ্যায় ফের মহানবীর ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশ করা হয়েছে। এ নিয়ে ইতিমধ্যে বিশ্ব জুড়ে তৈরি হয়েছে বিতর্ক।

হামলার পর শার্লি এবদোর জনপ্রিয়তা বেড়ে গেছে। যে কারণে এবার পত্রিকাটির ৩০ লাখ কপি ছাপানো হয়েছে। স্বাভাবিক সময়ে মাত্র ৬০ হাজার কপি ছাপা হয়ে থাকে। ফরাসি, ইংরেজি, আরবি এবং তুর্কীসহ মোট ছয়টি ভাষায় এটি প্রকাশিত হয়েছে।

এই সংখ্যার গোটা প্রচ্ছদ জুড়ে প্রকাশিত হয়েছে হযরত মুহাম্মদ (স.) কান্নারত একটি ব্যঙ্গচিত্র। ছবিতে মহানবী ‘আমিই শার্লি’ নামের একটি সাইনবোর্ড হাতে ধরে আছেন। আর এই কার্টুনের ওপর লেখা রয়েছে সব ক্ষমা করা হলো।

পত্রিকাটির ভিতরে মহানবীর আর কোনো কার্টুন রাখা হয়নি। তবে মুসলিম চরমপন্থিদের নিয়ে বেশ কিছু ব্যঙ্গচিত্র রয়েছে। এক কার্টুনে দেখা যায়, দুই সন্ত্রাসী বেহেশতে প্রবেশের পর জিজ্ঞেস করছেন,’৭০ হুর কোথায়?’ তাদের পিছনেই শার্লি এবদোর নিহত সাংবাদিকদের ছবি রয়েছে যারা হুরদের নিয়ে স্ফূর্তি করছেন।
পত্রিকাটির সম্পাদকীয়তে তাদের প্রতি একাত্মতা প্রকাশের জন্য লাখ লাখ মানুষের প্রতি ধন্যবাদ জানানো হয়েছে।

শার্লি এবদোর নতুর সংখ্যাটি ফরাসি সংবাদ মাধ্যমে ব্যাপক প্রচারণা পেয়েছে। দেশের অন্যান্য পত্রপত্রিকাগুলোতেও এর প্রচ্ছদটি প্রকাশ করা হয়েছে। ফ্রান্সের বাইরে যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন পোস্ট, ব্রিটেনের গার্ডিয়ান, জার্মানির ফ্রাঙ্কফুর্টার অ্যালজেমেইন এবং ইতালির কুরিয়ার ডিলা সেরা সংবাদপত্রেও এই প্রচ্ছদের ছবি প্রকাশিত হয়েছে।

ইতিমধ্যে এই প্রচ্ছদ নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছে এবং বিভিন্ন মুসলিম দেশের নেতারা এর সমালোচনা করেছেন। তারা সতর্ক করে দিয়ে বলছেন, এর ফলে আরো হামলার ঝুঁকি তৈরি হবে।

সুন্নি মুসলিমদের সবচেয়ে বিখ্যাত শিক্ষাঙ্গন আল-আজহার বলছে, এই ছবিটি মানুষের মধ্যে আরো বেশি ঘৃণা ছড়াবে।

তবে শার্লি এবদোকে সমর্থন জানিয়েছে যুক্তরাজ্য। ব্রিটেনের সংস্কৃতিমন্ত্রী এড বেইজি বলেছেন, গত সপ্তাহের হামলার সঠিক জবাব হিসেবে শার্লি এবদো স্বাধীনভাবে মত প্রকাশ করতে পারে।

মিশরের ইসলামিক কর্তৃপক্ষ, দার আল ইফতা এই মলাটকে ‘অহেতুক প্ররোচনা’ বলে আখ্যায়িত করছে। ব্রিটেন মুসলিম এসোসিয়শনের প্রধান ওমার আল হামদুন বলেছেন, অপরাধের জবাবে অপরাধ করা বাকস্বাধীনতা প্রকাশ করে না।

তবে শার্লি এবদোর কর্মকর্তারা এ নিয়ে সফাই গেয়ে বলছেন, পত্রিকার নীতির সামঞ্জস্য রেখেই তারা এই মলাটটি তৈরি করেছেন এবং এর অর্থ সাংবাদিকরা হামলাকারী জঙ্গিদের ক্ষমা করে দিয়েছেন।

ঢাকা, ১৪ জানুয়ারি (ওমেনঅাই)/এসএল/

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close