আমাদের নুতন ওয়েবসাইট www.womeneye24.com চালু হয়েছে। নুতন সাইট যাবার জন্য এখানে ক্লিক করুন
সারাদেশ

চলতি সপ্তাহের শেষে শীত পালাবে

shit wmnওমেনআই:হিমেল হাওয়া, ঘন কুয়াশা ও সূর্যের লুকোচুরি খেলায় আবারো বাড়ছে শীতের তীব্রতা। মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের শৈত্যপ্রবাহে রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে শনিবার থেকে জেঁকে বসতে পারে শীত। দু’তিন দিন স্থায়ী হওয়া এ শৈত্যপ্রবাহে দেশের অধিকাংশ অঞ্চলেই তাপমাত্রা কমবে। তবে আগামী ২ ফেব্রুয়ারির পর তাপমাত্রা ক্রমান্বয়ে বাড়বে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়া অধিদপ্তরের পরিচালক শাহ আলম। পাশাপাশি এই মওসুমে শীতের আমেজ মাঘজুড়েই থাকবে বলেও জানান তিনি।

কয়েকদিন বিরতির পর গত দু’দিন ধরে আবারো বইতে শুরু করেছে ঠাণ্ডা হাওয়া। সকালে ঘন কুয়াশার মাত্রাও অনেক বেড়েছে। অনেক বেলা অব্দি দেখা মেলে না সূর্যের। শুক্রবার সন্ধ্যার পর ঠাণ্ডার এই মাত্রা বাড়তে থাকে। শুক্রবার ঢাকায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৭ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং দেশে সর্বনিম্ন ছিল শ্রীমঙ্গল ও রংপুরে ১৩ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। শুক্রবার রংপুর, দিনাজপুর ও সৈয়দপুরে প্রায় ৫ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

শীতের এই তীব্রতা শনিবার থেকে আরো বেড়ে যেতে পারে। মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের শৈত্যপ্রবাহে জেঁকে বসতে পারে শীত। আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের উপর দিয়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে চলছে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের নদী অববাহিকায় হালকা থেকে মাঝারি ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রাতের তাপমাত্রা ১ থেকে ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস হ্রাস পেতে পারে। দিনে আকাশ অস্থায়ীভাব মেঘলাসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের পরিচালক শাহ আলম বলেন, ‘শুক্রবার থেকে দেশের বিভিন্ন স্থানে শৈত্যপ্রবাহ হবে। তাপমাত্রা কমবে। এই শৈত্যপ্রবাহ দু’তিন দিন ধরে চলতে পারে। তবে আগামী মাসের ২ তারিখের পর তাপমাত্রা ক্রমান্বয়ে বাড়বে।’

ঠান্ডা হিমেল হাওয়া, ঘন কুয়াশা ও সূর্যের লুকোচুরি খেলায় আবারো বাড়ছে শীতের তীব্রতা। মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের শৈত্যপ্রবাহে রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে আজ থেকে ঝেকে বসতে পারে শীত। দু/তিন দিন স্থায়ী হওয়া এ শৈত্যপ্রবাহে দেশের অধিকাংশ অঞ্চলেই তাপমাত্রা কমবে। তবে আগামী ২ তারিখের পর তাপমাত্রা ক্রমান্বয়ে বাড়বে বলে জানিয়েছেন আবহাওয়া অধিদপ্তরের পরিচালক শাহ আলম। পাশাপাশি এই মৌসুমে শীতের আমেজ মাঘ জুড়েই থাকবে বলেও জানান তিনি।

কয়েকদিন বিরতির পর গত দু দিন ধরে আবারো বইতে শুরু করেছে ঠাণ্ডা হাওয়া। সকালে ঘন কুয়াশার মাত্রাও অনেক বেড়েছে। অনেক বেলা অবধি দেখা মেলেনা সূর্যের। গতকাল সন্ধ্যার পর ঠান্ডার এই মাত্রা বাড়তে থাকে। এছাড়া বৃহস্পতিবারের তুলনায় শুক্রবার তাপমাত্রও কমেছে। গতকাল ঢাকায় সর্বনিন্ম তাপমাত্রা ছিল ১৭.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং দেশের সর্বনিন্ম ছিল শ্রীমঙ্গল ও রংপুরে ১৩.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গতকাল রংপুর, দিনাজপুর ও সৈয়দপুরে প্রায় ৫ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে।

শীতের এই তীব্রতা আজ থেকে আরো বেড়ে যেতে পারে। মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের শৈত্যপ্রবাহে ঝেকে বসতে পারে শীত। আবহাওয়া অধিদপ্তর জানিয়েছে, দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের উপর দিয়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে চলছে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের নদী অববাহিকায় হালকা থেকে মাঝারী ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, রাতের তাপমাত্রা ১ থেকে ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস হ্রাস পেতে পারে। দিনে আকাশ অস্থায়ীভাব মেঘলাসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে।
আবহাওয়া অধিদপ্তরের পরিচালক শাহ্ আলম বলেন, ’আজ থেকে দেশের বিভিন্ন স্থানে শৈত্যপ্রবাহ হবে। তাপমাত্রা কমবে। এই শৈত্যপ্রবাহ দু/তিন দিন ধরে চলতে পারে। তবে আগামী মাসের ২ তারিখের পর তাপমাত্রা ক্রমান্বয়ে বাড়বে।’

তিনি আরও বলেন, ‘শৈত্যপ্রবাহটির পর শীতের এ মওসুমে হয়তো তেমন বড় কিছু হবে না। তবে কয়েকদিন পর তাপমাত্রা আবারো কিছু কমতে পারে। শীতের আমেজ আরো কিছুদিন থাকবে।’

ঢাকা ৩১ জানুয়ারি (ওমেনআই)/এসএল/

আরও পড়ুন

Back to top button
Close
Close